নিজেই করুন নিজের কোম্পানির মার্কেটিং

নিজেই করুন নিজের কোম্পানির মার্কেটিং

১. নিদৃষ্ট একটি সময় বের করে নিন মার্কেটিং এর জন্য।
২. আপনার কোম্পানির ভিসিটিং কার্ড না থাকলে করে নিন , যত বেশি সম্ভব ভিসিটিং কার্ড সবার মাঝে বিলিয়ে দিন।কেন না আপনি যাকে ভিসিটিং কার্ড দিচ্ছে তার হয়ত এই সার্ভিস টি আজকে লাগবে না কিন্তু যখনি দরকার হবে তখনি যাতে আপনার কথা আগে মনে পরে।
৩. নতুন কোন আইডিয়া বের করুন যেটা সবার থেকে একটু বিন্ন।
৪. সফল বাক্তিদের কথা শুনুন এবং বই পড়ুন। কারণ এতে করে আপনি নতুন করে কাজ করতে আগ্রহ হয়ে উঠবেন।
৫. আপনার সার্ভিস সম্পর্কিত টিপস জাতীয় আর্টিকেল লিখুন এবং সেগুলো বিভিন্ন ব্লগ এ শেয়ার করুন। এটি আপনি প্রতি সপ্তাহে একটি করলেই হবে।
৬. কোম্পানির একটি ফেইসবুক পেজ তৈরী করুন এবং নিয়মিত পোস্ট করুন। সব সময় কেবল আপনার প্রোডাক্ট বা সার্ভিস নিয়ে পোস্ট না করে মাঝে মাঝে বিন্ন কোন পোস্ট করুন যেমন:- জোকস , হেল্প টিপস ইত্যাদি।
৭. একটি টুইটার একাউন্ট তৈরী করুন এবং নিয়মিত পোস্ট করুন।
৮. একটি পিন্টারেস্ট একাউন্ট তৈরী করুন এবং নিয়মিত পোস্ট করুন।
৯. কোম্পানির একটি লিংকডিন পেজ তৈরী করুন এবং নিয়মিত পোস্ট করুন ।
১০. কোম্পানির একটি google+ পেজ তৈরী করুন এবং নিয়মিত পোস্ট করুন।
১১. একটি instagram একাউন্ট তৈরী করুন এবং নিয়মিত পোস্ট করুন।
১২. সম্বব হলে গুগল বিসনেস ম্যাপ এ আপনার কোম্পানি টি লিস্টিং করে পেলুন।
১৩. জয়েন করুন গুগল কমিউনিটি তে এবং মাঝে মাঝে আপনার সার্ভিস নিয়া পোস্ট করুন
১৪. জয়েন করুন ফেইসবুক গ্রুপ এ এবং মাঝে মাঝে আপনার সার্ভিস নিয়া পোস্ট করুন
১৫. জয়েন করুন লিংকডিন গ্রুপ এ এবং মাঝে মাঝে আপনার সার্ভিস নিয়া পোস্ট করুন
১৬. আপনি অবশ্যই খেয়াল রাখবেন সোশ্যাল মিডিয়ার কোন ফ্যান কোন কমেন্টস অথবা মাসেজ দিলে সাথে উত্তর দিবেন।
১৭. ফেইসবুক এ কোম্পানির একটি গ্রুপ তৈরী করুন এবং যত সম্বব মেম্বার অ্যাড করুন।
১৮. যত সম্বব ইমেইল কালেক্ট করুন এবং মাঝে মাঝে আপনার সার্ভিস এর অফার গুলো সেন্ড করুন।
১৯. চেস্টা করুন লোকাল বিভিন্ন ইভেন্ট গুলোতে স্পন্সর করার জন্য।
২০. বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল ইভেন্ট গুলোতে জয়েন করুন পারলে স্পন্সর করুন।
২১. সম্বব হলে নিউজপেপার বা মাগাজিন এ রিভিউ লেখান। অল্প কিছু টাকা দিলেই আপনি ভালো কোন পত্রিকা তে রিভিউ লেখাতে পারবেন।
২২. একটি ওয়েবসাইট তৈরী করুন এবং সেটিতে আপনার কোম্পানি সম্পর্কে ডিটেলস তথ্য দিন।
২৩. আপনার ওয়েবসাইট টি কে অবস্যই সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন করুন। দীর্ঘ সময় যদি আপনি উপকার পেতে চান।
২৪. আপনার ওয়েবসাইট এ একটি গেস্ট ব্লগ এর অপশন রাখুন এতে করে ওয়েবসাইট এ ভিসিটর এর পরিমান বেড়ে যাবে।
২৫. আপনার কোম্পানি কে বিভিন্ন দরনের বিসনেস ডিরেক্টরি তে আড্ড করুন।
২৬. শর্ট টাইম এ বিক্রির জন্য ফেইসবুক পেইড অ্যাড দিতে পারেন।
২৭. শর্ট টাইম এ বিক্রির জন্য গুগল আডওয়ার্ড অ্যাড দিতে পারেন।
২৮. মাঝে মাঝে আপনার পুরাতন কাস্টমার দের কে ইমেইল সেন্ড করুন নতুন কোন অফার দিয়ে।
২৯.মাঝে মাঝে সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে নতুন কোন অফার দিন।
৩০. মাঝে মাঝে পুরনো কাস্টমার দের ফোন দিন।
৩১. মাঝে মাঝে পুরনো কাস্টমার দের sms পাঠাতে পারেন নতুন কোন অফার দিয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Help-Desk